Official Website of Khulna City CorporationOfficial Website of Khulna City Corporation

Latest News


মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে নগরীর খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মাননা প্রদান করা হয়

মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে আজ বুধবার দুপুরে নগর ভবনের শহীদ আলতাফ মিলনায়তনে মহানগরীর খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের আনুষ্ঠানিকভাবে সংবর্ধনা দেয়া হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান। সভাপতিত্ব করেন কেসিসি’র সমাজ কল্যাণ ও কমিউনিটি সেন্টার স্থায়ী কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর মোঃ আলী আকবর টিপু। 

অনুষ্ঠানে বীর উত্তম লে. কর্ণেল এইচ এম এ গফফার হালদার, বীর বিক্রম খিজির আলী, লেফটেন্যান্ট মোঃ রহমত উল্লাহ গাজী’কে সংবর্ধনা জ্ঞাপন, সম্মাননা স্মারক প্রদান এবং বীর প্রতীক মরহুম সুবেদার মেজর আব্দুল জলিল’কে মরণোত্তর সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। বীর প্রতীক মরহুম সুবেদার মেজর আব্দুল জলিলের পক্ষে তাঁর পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ সম্মাননা স্মারক গ্রহণ করেন। সংবর্ধিত অতিথিবৃন্দ অনুষ্ঠানে তাদের অনুভূক্তি ব্যক্ত করেন। 

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিটি মেয়র মুক্তিযোদ্ধাদের জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, জীবনের বিনিময়ে যারা স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধ করেছেন জাতির ইতিহাস তাঁদেরকে চিরকাল শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে। তিনি বলেন, এ দেশের ইতিহাস বস্তুনিষ্ঠভাবে বর্ণনা করা হয়নি। তাই অনেক সত্য ঘটনা যেমন অনুদঘাটিত রয়ে গেছে তেমনি বিভিন্ন কারণে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে ক্ষতবিক্ষত করা হচ্ছে। আমরা জাতিকে সঠিক ইতিহাস জানাতে ব্যর্থ হলেও ইতিহাসের সত্য একদিন উম্মোচিত হবে। নতুন প্রজন্মই জাতিকে সঠিক ইতিহাস উপহার দেবে। তিনি বাংলাদেশ নামক ভূখন্ড নির্মাণে মুক্তিযোদ্ধাদের ভূমিকা তুলে ধরেন এবং তাঁদের কল্যাণে কেসিসি’র পক্ষ থেকে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। 

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন কেসিসি’র প্যানেল মেয়র মোঃ আনিসুর রহমান বিশ্বাস, শেখ হাফিজুর রহমান ও রুমা খাতুন। মুক্তিযুদ্ধকালীণ সময়ের স্মৃতিচারণ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু জাফর, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাইয়ুম ও আবুল হাসান দুলু। স্বাগত বক্তৃতা করেন কেসিসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল হান্নান বিশ্বাস ও অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এরাদুল হক।