Official Website of Khulna City CorporationOfficial Website of Khulna City Corporation

Latest News


মাস্টারপ্লান বাস্তবায়ন বিষয়ে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সাথে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (কেডিএ) ‘ড্রাফট ডিটেইল্ড এরিয়া ডেভেলপমেন্ট প্লান’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা

মাস্টারপ্লান বাস্তবায়ন বিষয়ে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সাথে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (কেডিএ) ‘ড্রাফট ডিটেইল্ড এরিয়া ডেভেলপমেন্ট প্লান’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় নগর ভবনের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সিটি মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান। প্রণীত প্লানের বিষয়ে জনপ্রতিনিধি ও কেসিসি’র কর্মকর্তাদের মতামত গ্রহণের লক্ষ্যে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।

সভাপতির বক্তৃতায় সিটি মেয়র খুলনা’কে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি বাসযোগ্য সুন্দর নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে কেসিসি ও কেডিএ সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি কেডিএ কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, উন্নয়নের স্বার্থে একতাবদ্ধ হয়ে সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করতে হবে। শুধু স্থাপনা নয়, খুলনাঞ্চলের লেক, পুকুর সংরক্ষণ সহ পানীয় জলের সংকট সমাধানেও কেডিএ’র পরিকল্পনা থাকতে হবে। তিনি রূপসা ব্রীজ বাইপাস সড়কের সাথে মহানগরীর সংযোগ স্থাপনের জন্য ৮টি লিংক রোড নির্মাণ সহ নগর উন্নয়নে নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন।  

সিটি মেয়র আরো বলেন, ১৮৮৪ সালে গঠিত খুলনা পৌরসভা নানা বিবর্তনের মধ্য দিয়ে আজকের এই অবস্থানে দাড়িয়েছে। বিভিন্ন শিল্প-কারখানা গড়ে ওঠায় অন্যান্য শহরের তুলনায় এ শহরে জনসংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি বলেন, নগর ব্যবস্থাপনার জন্য উন্নত বিশ্বে সিটি গভর্ণন্যান্স ব্যবস্থা চালু থাকলেও আমাদের দেশে নেই। কয়েকটি সংস্থা ও বিভাগকে সম্মিলিতভাবে নগর বা নগরাঞ্চল উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনার কাজ করতে হচ্ছে। খুলনাঞ্চলের বিভিন্ন সংকটের কথা তুলে ধরে সিটি মেয়র বলেন,  দূরদর্শিতার মাধ্যমে সংকটগুলি সমাধান করতে হবে। বেনাপোল ও ভোমরা স্থল বন্দর এবং মংলা সমুদ্র বন্দরের কারণে আগামীতে এ অঞ্চল আন্তর্জাতিক বাণিজ্য কেন্দ্রে পরিণত হবে। এছাড়া জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সমুদ্র পৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি, নদ-নদীর নাব্যতা হ্রাস, পানীয় জলের সংকট ইত্যাদি বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের মতামতের ভিত্তিতে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।

সভায় খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ আলম খান খুলনাঞ্চলের জন্য গৃহীত মাস্টার প্লানের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে বলেন, কেসিসি ও কেডিএ সমন্বয়ের সাথে কাজ করলে পরিকল্পিত শহর গড়ে তোলা সম্ভব হবে। তিনি বলেন, মাস্টারপ্লান বাস্তবায়িত হলে এ অঞ্চলের জনগণের জীবন যাত্রার মানোন্নয়ন সহ শিক্ষা ব্যবস্থা, আধুনিক চিকিৎসা সুবিধা ও ব্যবসা-বাণিজ্যের নতুন নতুন খাত উম্মোচিত হবে। ফলে এতদাঞ্চলের মানুষের আর্থ-সামাজিক অবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হবে।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে কেসিসি’র প্যানেল মেয়র মোঃ আনিসুর রহমান বিশ্বাস, শেখ হাফিজুর রহমান হাফিজ, রুমা খাতুন, কাউন্সিলর মোঃ শাহদাত মিনা, মোঃ সাইফুল ইসলাম, এস এম হুমায়ুন কবীর, শেখ শওকত আলী, মোঃ সুলতান মাহমুদ পিন্টু, মোঃ সাহিদুর রহমান, মোঃ ফারুক হিল্টন, মোঃ ইউনুস আলী সরদার, মোঃ মনিরুজ্জামান, মোঃ হাফিজুর রহমান মনি, আশফাকুর রহমান কাকন, মোঃ মাহবুব কায়সার, মোঃ আলী আকবর টিপু, ওয়াহেদুর রহমান দিপু, মোঃ গিয়াস উদ্দিন বনি, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর মনিরা আক্তার, সাহিদা বেগম, রহিমা আক্তার হেনা, পারভীন আক্তার, আনজিরা খাতুন, রাবেয়া ফাহিদ হাসনাহেনা, নাদিরা হোসেন তুলি, সচিব এম ইদ্রিস সিদ্দিকী, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মোঃ শাহনেওয়াজ তালুকদার, কেডিএ’র প্রধান প্রকৌশলী এ টি এম ওয়াহিদ আজহার, কেসিসি’র ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ নাজমুল ইসলাম, কেডিএ’র টাউন প্লানার কাজী মোঃ সাবিরুল আলম, ডিটেইলড এরিয়া প্লান প্রকল্পের পরিচালক মোঃ মুজিবুর রহমান, কেসিসি’র প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এ কে এম আব্দুল্লাহ, বিএও মোঃ আজহারুল ইসলাম, নির্বাহী প্রকৌশলী লিয়াকত আলী খান, মশিউজ্জামান খান, চীফ প্লানিং অফিসার আবির উল-জব্বার, কঞ্জারভেন্সী অফিসার মোঃ আনিসুর রহমান, খুলনা প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোঃ ফারক আহমেদ,  সধারণ সম্পাদক জাহিদ হোসেন  প্রমুখ বক্তৃতা করেন ও উপস্থিত ছিলেন।