Official Website of Khulna City CorporationOfficial Website of Khulna City Corporation

Latest News


জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ পালন উপলক্ষে উদ্বুদ্ধকরণ ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেছেন, শিশুদের শারীরিক বৃদ্ধিও মানসিক বিকাশের জন্য কৃমি নিয়ন্ত্রণ অপরিহার্য। কৃমি মানুসের খাবারের পুষ্টি খেয়ে ফেলে ও রক্ত শোষণ করে। ফলে মারাত্মক স্বাস্থ্যহানী দেখা দেয়। শিশু-কিশোরদের এ ধরণের সংকট থেকে মুক্ত করে সবল দেহ গঠনের জন্য নিয়মিত স্বাস্থ্য পরিচর্যার মাধ্যমে তাদেরকে কৃমিমুক্ত রাখতে হবে। তিনি বলেন, আফ্রিকা সহ বিভিন্ন দেশে ইবোলা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এই প্রাণঘাতি রোগ যাতে আমাদের দেশে না ছড়ায় সে জন্য এখনি দেশজুড়ে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। 

সিটি মেয়র আজ বুধবার বিকাল ৪টায় নগর ভবনের শহীদ আলতাফ মিলনায়তনে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ পালন উপলক্ষে উদ্বুদ্ধকরণ ও পরিকল্পনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। অক্টোবর মাসের ১৯ থেকে ২৫ তারিখ পর্যন্ত জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ পালিত হবে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর-ঢাকার ফাইলোরিয়াসিস নির্মূল ও কৃমি নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের আওতায় কেসিসি’র স্বাস্থ্য বিভাগ এ সভার আয়োজন করে। কর্মসূচীর আওতায় খুলনা মহানগরীর ৫০৫টি বিদ্যালয়, মাদরাসা, মক্তব ও কিন্ডার গার্টেনে ৫ থেকে ১২ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের একটা করে কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে। 

কেসিসি’র শিক্ষা ও স্বাস্থ্য স্থায়ী কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর এ্যাড. শেখ জাহাঙ্গীর হুসাইন হেলাল-এর সভাপতিত্বে সভায় কেসিসি’র প্যানেল মেয়র রুমা খাতুন, কাউন্সিলর মোঃ মাহবুব কায়সার, মোঃ গিয়াস উদ্দিন বনি, মোঃ মনিরুজ্জামান, মোঃ হাফিজুর রহমান মনি, মোঃ সাইফুল ইসলাম, মোঃ ইউনুস আলী সরদার, শেখ শওকত আলী, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর আনজিরা খাতুন, মনিরা আক্তার, রহিমা আক্তার হেনা, পারভীন আক্তার, নাদিরা হোসেন তুলি, রাবেয়া ফাহিদ হাসনাহেনা, রোকেয়া ফারুক, মাহমুদা বেগম, সচিব এম ইদ্রিস সিদ্দিকী, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এ কে এম আব্দুল্লাহ, মেডিকেল অফিসার ডা. স্বপন কুমার হালদার, ডা. শরীফ শাম্মিউল ইসলাম, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সুকুমার মিত্র সহ বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারি সংস্থার কর্মকর্তা ও প্রতিনিধিগণ বক্তৃতা করেন ও উপস্থিত ছিলেন।